পরিবর্তন আনবো আমরাই

birdsanimalscandlescagesbooks-1558826739164-8599
এটা আমার প্রথম ব্লগ পোষ্ট। তাই কিছু ফাও প্যাঁচাল পেড়ে নেই। দু একটি কথা বলি।
মানুষের কিছু ইচ্ছা থাকে যা সে মনেপ্রাণে পুরন করতে চায়। আমারও সেরকম ইচ্ছা আছে, সেটা আর যাই হোক ব্লগার হওয়া নয়। তাহলে কেন ব্লগিং শুরু করলাম? বলতে পারেন একরকম শখের বশেই ব্লগিং এ নাম লেখানো। কিন্তু আমিযে আমড়া কাঠের ঢেঁকি, আমার দ্বারা সন্তোষজনকভাবে আজ পর্যন্ত কিচ্ছু হয়নি, হবেওনা বোধহয়। সেটা ব্লগিং ই হোক আর যাইই হোক, আমার দ্বারা অকাজ ছাড়া আর কিছু হয়নি।
তবে হঠাৎ এই অদ্ভুত শখ চাপার পেছনেও একটুখানি কারণ রয়েছে। সেটা হচ্ছে প্রান খুলে কিছু বলতে পারা যায় ব্লগে। সমাজের নানা সঙ্গতি-অসঙ্গতি, যেগুলো সইতেও পারা যায়না, কিছু কইতেও পারা যায়না, সেই বিষয়গুলো নিয়ে  ব্লগে ইচ্ছামত অভিমত পোষণ করা যায়। কেউ কিচ্ছু বলবেনা।
হয়ত, এখনো অতবড় মাপের মানুষ হতে পারিনি, সমাজ বা দেশের জন্যে তো কিছু করতেও পারিনি। তবে ভাবনা অনেক আছে ছোট্ট এই গোলমেলে মাথায়। স্বপ্ন আছে আকাশছোঁয়া। কিন্তু সেগুলো ভেতরেই বন্দী রয়ে গেলো। আমার এই সুন্দর দেশটাকে নিয়ে, আমার চারপাশ ঘিরে থাকা সমাজটা নিয়ে, কি সব ভাবনাগুলো উকি দিচ্ছে মাথায় সেগুলোই শেয়ার করবো এখানে। আমি যদি কিছু নাও করতে পারি, হয়ত আমার ভাবনা দেখে আরেকজন বাস্তবায়ন করে ফেলবে। তাতেই বা কম কিসে?
আমি মুসলিম, আমি আল্লাহতে বিশ্বাস করি। আমি বিশ্বাস করি সুদিন আসবেই আমাদের এই বাংলাতে। সত্যিকার সোনার বাংলা হয়ে উঠবে আমাদের হাত ধরেই। আল্লাহই আমাদের সাহায্য করবেন।
কিন্তু কাজগুলো করতে হবে নিজেকেই। দিন বদলের গানটা গাইতে হবে নিজ নিজ জায়গায় দাঁড়িয়ে। সবাই যদি নিজের গন্ডিটা বদলাতে পারি তাহলে তো দেশ বদলাতে বাধ্য।
কিন্তু হচ্ছেনা কেন? ওইযে! ব্যাপারটা এরকম যে, বিড়ালের গলায় ঘন্টা বাধবে কে? বড় বড় বুলি তো বাপু সবাই আওড়ায়। করে দেখাতে পারে কয়জনে?
আমরা নতুন প্রজন্ম, বুলি আওড়ানোতে বিশ্বাসী নই, কিছু একটা করে দেখানোয় বিশ্বাসী।
তো এত ফ্যাচফ্যাচ করে কি লাভ বলো? তারচেয়ে শুরুটা বরং করেই ফেলি।
চলোনা “বিন্দু থেকে বৃত্ত গড়ার স্বপ্নটা দেখেই ফেলি”

Share Now

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on pocket
Share on email

Write a Comment